HeaderDesktopLD
HeaderMobile

মসলিনে মিলমিশ, জমিদারি ধুতি, পুরুষ তোমার রূপের ছটায় জ্বলবে হাজার বাতি

0 35

সাজনা হ্যায় মুঝে…

কে বলেছে গুছিয়ে সাজগোজে শুধু মহিলাদেরই একচেটিয়া অধিকার। চওড়া ছাতিতে আঁটোসাঁটো করে চেপে বসা বাহারি মসলিন বা বাবুয়ানি জমিদারি ধুতিতে খানদানি চমক এনে পুরুষরাও বা কম যায় কিসে! রঙিন ধুতির সঙ্গে বাহারের পাঞ্জাবি বা কুর্তা-আলিগড়ি পায়জামা স্টাইলিশ জ্যাকেটে স্মার্ট বঙ্গতনয় মহিলা মহলে একমুঠো উষ্ণতা ছড়িয়ে দিয়ে যায় তাতে সন্দেহ নেই। সবসময় শার্ট-ট্রাউজারে হিরো সাজতে হবে এমন কোনও বাধ্যবাধ্যকতা নেই। বরং অষ্টমীর রাতে যদি লাল ধুতির সঙ্গে কারুকাজ করা ঘিয়ে রঙা পাঞ্জাবি আর কাঁধের উপরে আলগোছে ঝুলিয়ে নেওয়া যায় একখানা খাসা উত্তরীয়, তাহলে সুন্দরী মহিলাদের ভিড়ে ‘সুন্দর’ পুরুষটি নজর টানতে বাধ্য।

সাবেকি সাজ হোক বা কেতাদুরস্ত পশ্চিমী সাজ, পুজোর ফ্যাশনে সবসময়ই ‘ইন’। স্ট্রেট ফিট ডেনিম বা হুডেড-টি যেমন কখনও পুরনো হয় না তেমনি খানদানি আলিগড়ি পায়জামার চল সবসময়েই থাকে। তাছাড়া ডিজিটাল যুগে জেন্ডার নিউট্রাল ট্রেন্ড বা ইউনিসেক্স আউটফিটের ব্র্যান্ডই বেশি বিকোচ্ছে। ব্লেজার, ট্যাক্সিডো, ওভারসাইজড জিনস বা টি-শার্ট বেশ জনপ্রিয় জেন্ডার নিউট্রাল আউটফিট। হট-শট বোল্ড লুকে যদি ক্রাশের নজর টানার ইচ্ছা থাকে তাহলে আর নারী-পুরুষে তফাৎ না রেখে ডিজাইনার স্কার্ট, ব্লাউজ বা ড্রেস অথবা পালাজোতেও সেক্সি হয়ে উঠতে পারে জেন ওয়াই। সঙ্গে ম্যাচিং ইউনিসেক্স জুয়েলারি।

Durga Puja Special: Types Of Bengali Kurtas For Men - Boldsky.com

জি-বাংলা কৃষ্ণকলি সিরিয়ালের অশোক ওরফে ভিভান ঘোষ বললেন, “এবার আর অত চোখ ধাঁধানো পোশাকে সাজব না। বরং হালকা সুতির পাঞ্জাবিই ভাল। করোনার জন্য ফ্যাশন একটু সাধারণ হওয়াই ভাল। সহজেই গলিয়ে নেওয়া যাবে এমন পোশাক এবং পরিষ্কার করার সুবিধেও আছে। সেদিক থেকে আমার মনে নয় ছেলেদের পাঞ্জাবি ও মেয়েদের সালোয়ারই এবার সবচেয়ে বেশি কমফর্টেবল।”

আসলে ফ্যাশন যতটা বাইরের সৌন্দর্য ততটাই মনের রুচি। মুক্ত স্বাধীন চিন্তার হাওয়া বাতাস না খেললে ফ্যাশন ঠিক জমে না। স্টাইল স্টেটমেন্টে ছেলে-মেয়ে বাতিকটা ঠিক চলে না। আজকালকার নারীরা কাঠ-কাঠ পুরুষালি আউটফিটের থেকে বরং নরম, ছিমছাম, ব্যতিক্রমী লুককেই বেশি প্রাধান্য দিচ্ছে। আজকের জেন ওয়াই তাই ফেমিনিন কাটের নেকলেসও পরছে আবার পোশাকের সঙ্গে মানানসই ব্যাগও বেছে নিচ্ছে। ফ্যাশন আর কমফর্টই এখন মোদ্দা কথা।

শেরওয়ানি-ধোতি না পাঞ্জাবির বাঙালিয়ানা

এবারের পুজো একটু ব্যতিক্রমী। শরৎ শরৎ গন্ধটা এসেছে ঠিকই, তবে বাঙালির পুজোর সে উচ্ছ্বাসটা নেই। করোনার আতঙ্কে হুজুকে বাঙালি একটু সিঁটিয়েই আছে। তবে পুজোর ফ্যাশনে কোনও খামতি থাকবে বলে ঠিক মনে হয় না। পছন্দমতো পোশাকে ওয়াড্রোব সাজিয়ে নেবেন অনেকেই। পুজোর ফ্যাশন মানে তাতে একটু বনেদিয়ানার ছাপ বেশ লাগে। বিশেষ করে শেরওয়ানি যখন অবাঙালি ঘরানা থেকে পুরোপুরি বাঙালির অন্দরমহলে ঢুকে পড়েছে, তখন কয়েকটা নিজের সংগ্রহে রাখা যেতেই পারে। তবে আজকালকার জেন-ওয়াই বাদশাহী ঝলমলে শেরওয়ানির চেয়ে ছিমছাম, নান্দনিক কাজের আরামদায়ক আউটফিটই বেছে নিচ্ছেন। অফ-হোয়াইটের পাশাপাশি শরতের গাঢ় নীল বা লাল রঙের কারুকাজও ফ্যাশনে আলাদা উজ্জ্বলতা এনে দেয়। অনেকে টেইলরিং শেরওয়ানি বানাচ্ছেন স্যুটের কাপড় দিয়ে। পাঞ্জাবির ওপর লেয়ারিং করেও শেরওয়ানি পরা যায়।সবসময় যে তাতে কনট্রাস্ট থাকবে তেমনটা নয়, যে রঙের পাঞ্জাবি, সেই রঙের শেরওয়ানি পরা যেতে পারে। তবে পোশাক ও তার রঙ নির্বাচন এমন হতে হবে যা কখনওই ব্যক্তিত্বকে ছাপিয়ে না যায়।

Tolly star Parambrata rocks five Puja looks curated by Kolkata designer Abhishek Dutta

ডেনিমের সঙ্গে কুর্তা পরার রেওয়াজ কিছুটা পুরনো, বদলে  খানদানি আলিগড়ি পায়জামা, অর্থাৎ চুড়ি পা বেশ জমে।  বুটিকের পাঞ্জাবি তো দেখা মাত্রই নজর কাড়ে। খাদি বা তসরের কাপড়ের ওপর  নানা রঙ ও কারুকাজই বেশি। ব্রোকেড সিল্কের পাঞ্জাবিও কখনও পুরনো হয় না। আর পাঞ্জাবিতে কাঁথা স্টিচের কাজ তো বরাবরই গ্রহণযোগ্য।  সাদা, কালো, মেরুন রঙে লং এবং শর্ট পাঠানি, ভি নেক শেরওয়ানি, চিকন কুর্তার চাহিদা এখনও রয়েছে। আবার ডিজাইনার পাঞ্জাবিতেও মজেছে জেন-ওয়াই। কলারবিহীন, স্যাট কলার, কাবলি, হাইনেক, শাহি কলার পাঞ্জাবি এখনকার ট্রেন্ড। এগুলো ঘুরিয়ে ফিরিয়ে মিক্স-ম্যাচ করে যে কোনও প্যান্টের সঙ্গেই পরা যায়। পাঞ্জাবির সঙ্গে শুধু স্লিপারই পরতে হবে, তা নয়। জুতা, এমনকি বুটও পরা যায়। ঠিকঠাক মানিয়ে চলতে পারলেই হিরো।

গল্প লেখে ফ্যাব্রিক প্যাটার্ন

ফ্যাব্রিকের ডিজাইন এখন আর মহিলাদের একচেটিয়া নয়, পুরুষের ফ্যাশনেও ফ্যাব্রিক এক আলাদা মাত্রা নিয়েছে। প্যাটার্নড ফ্যাব্রিক তার মধ্যে অন্যতম। প্যাটার্নের নানা রঙ, নানা রূপ। বিজনেস স্যুটের জন্য ট্রাডিশনাল পিনস্ট্রাইপ প্যাটার্ন। লম্বালম্বি লাইন যা শার্টেও বেশ খোলে। কাপড়ের উপর আড়াআড়ি বা সমান্তরালভাবে ক্রসহ্যাচ প্যাটার্ন বেশ জমাটি। ধূসর রঙা স্যুটে এটি অভিনব ফ্যাশন। পুজোর সাজ হোক বা ফর্মাল ফ্যাশন, সূক্ষ্ম বুনোটের সেলফ স্ট্রাইপ সবসময়েই পুরুষের পছন্দের তালিকায় থাকে।

Hand Painted Designer Neckline on Yellow Colored Kurti | Designer Kurti - YouTube

সাজাব যতনে…

স্ট্রেট ফিট ডেনিম সবসময়ই পছন্দ জেন-ওয়াইয়ের। একটু চটকদার সাজ পছন্দ হলে স্প্রে ডেনিম বেশ খোলতাই। সঙ্গে হুডেড-টি ব্যতিক্রমী লুক দেবে।

এক রঙা হাফহাতা কটন টি-শার্ট যেমন বেশ আরামদায়ক তেমনি যে কোনও অনুষ্ঠানেই মানিয়ে যাবে। টার্টেল নেক যেকোনো পোশাককে করে তুলতে পারে ক্লাসি। বিশেষ করে ওভারকোট বা জ্যাকেটের সঙ্গে পরলে বেশ ভাল দেখায়। চিরাচরিত ব্ল্যাক-ব্রাউন প্যান্টস ছাড়াও প্যাস্টেল শেডের বিভিন্ন কনট্রাস্ট রঙের প্যান্টসের ফ্যাশনেও এখন বেশ সাহসী হয়ে উঠছেন ছেলেরা।

We bet you didn't know these 'secrets' of Jisshu Sengupta | The Times of India

ইন্দোনেশীয় বাটিক শার্টও খুব জমকালো। লম্বাঝুলের ফুলহাতা এই ধরনের শার্টগুলো একটু ঢিলেঢালা হয়। তাতে ভেতো বাঙালির মেদ সহজেই ঢাকা পড়বে।  একটু শাইনি চকমকে আউটফিট চাইলে স্প্যানডক্সের ট্রাউজার্স ক্যাজুয়ালের জন্য বেশ ভাল, আর ফর্মালের মধ্যে  গ্লসি কাপড়ের শার্ট ও ফ্ল্যাটফ্রন্ট ট্রাউজার্স। পুজো হোক পার্টিওয়্যার দিব্যি মানিয়ে যাবে। প্রতিবছরই পুজোর সাজ বদলায়। এক্সপেরিমেন্টাল লুকও মন্দ নয়। হাল্কা কাজ করা র’ সিল্ক, লিনেন, জুটের কুর্তার সঙ্গে প্রিন্টেড ধুতি বা টিশার্ট, নেহরু জ্যাকেটের সঙ্গে যোধপুরী বন্ধগলা বা জহর কোটের সঙ্গে ধুতি  ফিউশন সাজ। সঙ্গে থাক জেন্ডার-নিউট্রাল গয়না। ক্লাসি রিস্ট ওয়াচ এখনকার ছেলেদের বেশ পছন্দ, স্টাইলের দিক থেকে সেরামিক, টাইটেনিয়াম ঘড়ির কদরই আলাদা। ডাল ম্যাট ফিনিশ সিলভার ঘড়ি বা ব্রাশ মেটালের ঘড়িও পরা যেতে পারে, অলটাইমের ট্রেন্ড।

জিএসটি-তেই মরবে ভাইরাস, স্যানিটাইজারে চাপা অতিরিক্ত করে সরকারকে অনির্বাণের তোপ | Tollywood Actor Anirban Bhattacharya opens up on Gst on sanitizer BJC

জুতোর মধ্যে  হাই হিলড অ্যাঙ্কল শু ছেলেদের বেশ পছন্দ। তাছাড়া কমবয়সীদের জন্য বোট শু তো রয়েছেই। অনলাইন শপিং সাইটগুলিতেই পাওয়া যাবে। আর পোশাকের সঙ্গে ব্যাগ পছন্দ হলে, ব্র্যান্ডেড নানা ধরনের ব্যাগ তো রয়েছেই। নন-ব্র্যান্ডের মধ্যে পপ কালারের ট্রেন্ডি ব্যাকপ্যাকও ইদানীং অনেকেই ক্যারি করছেন। বেশ একটা ফাঙ্কি স্টাইল তৈরি হয়ে যায় এতে।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.