HeaderDesktopLD
HeaderMobile

ভোগের খিচুড়ি থেকে বাদশাহী বিরিয়ানি, এবার পুজোয় বাড়িতে বসেই মিলবে সবকিছু

0 584

পুজো এবং পেটপুজো এই দুটো নিয়েই বাঙালির একটু বেশি আগ্রহ রয়েছে। পুজোর কোন দিন কোন রেস্টুরেন্টে খাবেন, কোন রেস্টুরেন্টের কী মেনু,কোনটা বেশি ভাল– এসব নিয়ে পুজোর আগে থেকেই চলে তোড়জোড়। কিন্তু এবার করোনা আবহে সবকিছুই একটু উল্টো পাল্টা হয়েছে! তাই বলে কী পুজোতে আনন্দ করবেন না? পেটপুজো বন্ধ থাকবে নাকি! একদম না। বাড়িতে বসেই এবারের পুজো জমে উঠবে। নিউনর্মাল জীবনে পুজো থেকে পেটপুজো হবে অন্যরকম স্বাদে।

এতদিন অনলাইনে জামাকাপড় কিনেছেন, জুতো, মাসকাবারির জিনিস কিনেছেন !এবার কিন্তু সেই তালিকাতে যোগ হল পুজোর ভোগও। বাড়িতে থেকে যাতে পুজোর আনন্দ থেকে এতটুকুও বঞ্চিত না হন, সেই উদ্দেশ্যেই একটি বেসরকারি সংস্থা বাড়িতেই প্রসাদ পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে। এ ছাড়াও খাদ্যরসিক বাঙালির কাছে খাবার পৌঁছে দেবে পঞ্চায়েত দফতর। খিচুড়ি-লাবড়া থেকে ইলিশ, চিংড়ি, চাইলে পোলাও, বিরিয়ানিও পৌঁছে দেবে তারা। এছাড়াও দুটো প্রাচীন রাজবাড়ির পুজোর ভোগও পাওয়া যাবে বেসরকারি অ্যাপে।

বাইরে করোনা, তাই ভার্চুয়ালি ঠাকুর দেখা সারতে হবে এবছর। কিন্তু ঘরে বসে মোটেও একঘেয়ে লাগবে না। ঠাকুর দেখার সাথে ঘরে বসেই পাওয়া যাবে ভোগ। পঞ্চায়েত দফতর যেন ভূতের রাজা হয়ে বাস্তবেই বর দিয়েছে সাধারণ মানুষকে।

খিচুড়ি-লাবড়া থেকে লুচি-ছোলার ডাল, সুগন্ধী চালের ভাত থেকে বাসন্তী পোলাও, অথবা সর্ষে ইলিশ থেকে চিংড়ির মালাইকারি, সবই পাওয়া যাবে অনলাইনে। এছাড়াও যদি মিষ্টি খেতে ইচ্ছে হয়, তারও ব্যবস্থা রয়েছে। অর্ডার দিতে পারবেন বাংলার নানা প্রান্তের মিষ্টিও।

পঞ্চায়েতন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, সেল্ফ হেল্প গ্রুপের মেয়েরা রান্না করছে। পঞ্চায়েত দফতরও রয়েছে তাদের সঙ্গে। ভাল মানের এবং স্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি জিনিস থাকবে।

পঞ্চমী থেকে দশমী, তিনটি নম্বরে হোয়াটস অ্যাপ কল করে প্রতিদিন বিকেল তিনটে থেকে পাঁচটার মধ্যে অর্ডার দিতে হবে। নম্বরগুলি হল: 9163123556, 7044663631, 8170881794।

কিন্তু এ তো গেল রকমারি খাবারের কথা। এবার যদি ভোগ খাওয়ার ইচ্ছে হয়? সেই উপায়ও রয়েছে হাতের কাছে!

অনলাইনে এবার ভোগের সুবিধা নিয়েও হাজির হচ্ছে একটি বেসরকারি সংস্থা।  অ্যাপের মাধ্যামে অর্ডার করলেই পাওয়া যাবে শোভাবাজার রাজবাড়ি এবং জানবাজারের রানি রাসমণির বাড়ির পুজোর ভোগ।

ভারতের যে কোনও প্রান্তে বসেই মিলবে এই ভোগ খাওয়ার সুবিধা।

You might also like

Leave A Reply

Your email address will not be published.