HeaderDesktopLD
HeaderMobile

সিউড়ির অনাথ আশ্রমে প্রথম পুজো, খুশিতে ভাসছে সক্কলে

0

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গ্রামে এর আগে কখনও দুর্গাপুজো হয়নি। এত বছর পুজো দেখতে যেতে হত আশপাশের গ্রামে৷ এই প্রথম স্থানীয় আশ্রমের উদ্যোগে সিউড়ি (siuri) ২ ব্লকের কোমা পঞ্চায়েতের গাংটে গ্রামে দুর্গাপুজো হবে। আর তা নিয়েই এখন আনন্দের জোয়ার ছোট বড় সকলের প্রাণে।

পাউশী অন্ত্যোদয় অনাথ আশ্রম এবং গাংটের ষষ্ঠীধর বৈদ্য জনকল্যাণ সমিতির যৌথ উদ্যোগে বছর দশেক ধরেই গাংটে গ্রামে একটি আশ্রম চলছে। মূলত, এলাকার আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া পরিবারের শিশুদের পড়াশুনা শেখানো এবং তাদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্দেশ্যে ওই আশ্রম গড়ে তোলা হয়। প্রায় ২০০ জন শিশুকে নিয়ে নিয়মিত স্কুল বসে সেখানে।

আশ্রমের সদস্যরা জানান, আগে পুজোর আনন্দ উপভোগের জন্য স্কুলের শিশুরা কোমা, পুরন্দরপুর কিম্বা সিউড়ি যেত। দীর্ঘদিন ধরে শিশুরা চাইত গ্রামে একটা পুজো হোক। যাতে নিজের গ্রামে থেকেই পুজোর আনন্দ তারা উপভোগ করতে পারে।

শেষমেশ তাদের স্বপ্ন পূরণ করছেন স্বেচ্ছাসেবীরা। ওই দুই সংস্থার উদ্যোগে এবছর গাংটে গ্রামে প্রথম দুর্গাপুজোর আয়োজন করা হয়েছে। আশ্রম চত্বরেই সেই পুজো হবে। ইতিমধ্যে সেখানে প্রতিমা গড়ার কাজ চলছে।

করোনা আবহে প্রায় দেড় বছর ধরে এলাকার প্রায় ৭০ জন মানুষকে আশ্রমে খাওয়ানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। তাঁরাও পুজোতে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করবেন বলে জানা যায়। পুজোর কটাদিন গ্রামবাসীদের খাওয়ার বন্দোবস্ত থাকছে আশ্রমেই।

অন্যদিকে পাউশী অন্ত্যোদয় অনাথ আশ্রমের সম্পাদক বলরাম করণ বলেন, মূলত সকল গ্রামবাসীকে আনন্দ দেওয়া এবং খুদেদের মুখে হাসি ফোটাতেই তাঁদের এই আয়োজন।

তাঁদের আশা, আগামীদিনে আরও অনেক মানুষ সহযোগিতার হাত বাড়াবেন।

স্বাস্থ্য সংক্রান্ত আপডেট পেতে পড়ুন দ্য ওয়াল গুড হেল্থ

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.