HeaderDesktopLD
HeaderMobile

পুজোর অন্দরসাজ- রান্নাঘরের ভোলবদল

0

পুজোর বোনাস হাতে পেয়ে প্রায় সকলেই বাড়ির কিছু না কিছু দরকারি জিনিসপত্র কেনেন। পুজোর আগে পুরোনো রান্নাঘরকে নতুন করে সাজিয়ে তুলতে কী কী করতে পারেন জানাচ্ছেন ‘কুচিনা’র কর্ণধার নমিত বাজোরিয়া। কথা বলেছেন সোমা লাহিড়ী…পুজোর সময় অনেকেই রান্নাঘরটা একটু সাজিয়ে গুছিয়ে নিতে চান। তাঁদের কী পরামর্শ দেবেন?
নমিত- রান্নাঘরকে আমরা স্বাস্থ্যঘর বলতে পারি। আমাদের সুস্থ থাকা অনেকটাই নির্ভর করে আমরা কী খাচ্ছি, কেমন পরিবেশে কীভাবে রান্না হচ্ছে তার ওপরে। তাই কিচেনের হাইজিন সবসময় মেন্টেন করা দরকার। সারা বাড়ির রং হয়তো বছরে একবার করা সম্ভব নয়, কিন্তু রান্নাঘরের রং বছরে একবার করাতে পারলে ভালো হয়। এতে কিচেনে জমে থাকা ধুলোময়লা খুব ভালো করে সাফসুতরো হয়ে যায়। তাই প্রথমেই বলব, পুজোর আগে কিচেন ক্লিন করতে হবে খুব ভালো করে। কিচেন ক্লিন রাখার অবশ্য অন্য উপায়ও আছে। হেলদি কিচেনের জন্য যেটা একান্ত দরকার।কিচেন চিমনির কথা বলছেন নিশ্চয়ই?
নমিত-  ঠিক। যাঁদের কিচেনে এখনও চিমনি নেই তাঁরা পুজোর সময় বোনাসের টাকায় কিচেন চিমনি কিনুন। রান্নাঘরের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য চিমনি মাস্ট। সত্যি বলতে কি, এর সঙ্গে আমার ব্যক্তিগত সেন্টিমেন্ট জড়িয়ে আছে।
কীরকম?
নমিত- আসলে আগেকার দিনে বাড়ি যার যত বড়ই হোক না কেন, রান্নাঘরটা হত ঘুপচি আর ছোট্ট। ছোটোবেলায় যখন স্কুলে যেতাম দেখতাম মা রান্নাঘরের ধোঁয়ায় গলদঘর্ম হয়ে রান্না করতেন। আবার যখন স্কুল থেকে ফিরতাম তখনও দেখতাম মা রান্নাঘরের ধোঁয়ার মধ্যে বসে আমাদের টিফিন বানাচ্ছেন। দেখে খুব কষ্ট হত। সেই সময়েই ভেবেছিলাম মায়েদের রান্নাঘরের অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ থেকে মুক্তি দেব। এখান থেকেই কুচিনা কিচেন চিমনির জন্ম।কার কেমন কিচেন চিমনি কেনা উচিত?
নমিত-  অনেকগুলো বিষয়ের ওপর এটা নির্ভর করে। কিচেনের সাইজ, কত বার্নারের আভেন ব্যবহার করছেন, ওপেন কিচেন কিনা- এইসব দেখে ঠিক করতে হবে কেমন ক্ষমতাসম্পন্ন চিমনি আপনার দরকার। আমরা যেহেতু একটু বেশি ভাজাভুজি খাই, তেল মশলা দিয়ে কষে রান্না করি, তাই অন্তত 1200 সাক্সনের চিমনি কেনা উচিত।
চিমনি তো নানান রকম দেখতে হয়। কাজ কি একই?
নমিত-  গুড কোয়েশ্চন। বাজারে নানান কোম্পানির অনেক ধরনের চিমনি আছে। যেমন- ফ্ল্যাট, হুড, ইনক্লাইন, আইল্যান্ড, স্ট্রেট লাইন। যে কিচেনে যেমন স্পেস সেই অনুযায়ী সাজেস্ট করা হয়। অনেকে শখ করেও বিশেষ ডিজাইনের চিমনি নেন। তবে আসল হল সাক্সন পাওয়ার। কুচিনা অ্যাডভান্সড টেকনোলজির কয়েকটি চিমনি তৈরি করেছে। তার মধ্যে অটো-ক্লিন ও আই-অটোক্লিন সব থেকে ভালো। এর সুবিধে হল মেনটেনেন্স ফ্রি, সাক্সন ক্ষমতা নষ্ট হয় না, পাওয়ার সেভ করে।পুজোর আগে কিচেনের জন্য আর কী কী কেনা যেতে পারে?
নমিত-  যাঁদের মাইক্রো আভেন নেই তাঁরা কিনতে পারেন। ওটিজি, রাইস কুকার, মিক্সার-গ্রাইন্ডার ইত্যাদি এখন অনেক অ্যাডভান্সড টেকনোলজির হয়েছে। পুরোনো জিনিস বদলে ফেলুন। সময় ও পাওয়ার সেভ হবে, আর আপনার রান্নাঘরের সাজও বদলাবে।কুচিনা এখন চিমনি আর মডিউলার কিচেনের পাশাপাশি সবরকম কিচেন অ্যাপ্লায়েন্স তৈরি করছে। এগুলো শুধু আধুনিক কারিগরিতে তৈরিই নয়, মডার্ন লুকও আছে।এগুলো কি শুধু কুচিনার স্টোরেই মিলবে?
নমিত-  কুচিনার স্টোর ছাড়াও অনলাইনে কেনা যাবে আমাজন, ফ্লিপকার্ট ইত্যাদি থেকে।

You might also like
Leave A Reply

Your email address will not be published.